১০ রকমের ভর্তা রেসিপি ।Easy recipes Bangla। Bangla Food Recipes ।Bangla recipes।

                                                ১০ রকমের ভর্তা রেসিপি 

                                             


এমন কোনো বাঙালী খুঁজে পাওয়া মুশকিল যে ভর্তা পছন্দ করে না । বাঙালীদের সকল  উৎসবের দিনেও ভর্তা অন্যরকম আমেজ নিয়ে আসে। 

তাই  আপনাদের জন্য আমরা আজকে নিয়ে এসেছি বিভিন্ন ধরনের ভর্তা রেসিপিঃ

১)কালিজিরা দিয়ে আলু ভর্তা

উপকরণ: আলু দুটি বড় সাইজের, কালিজিরা ১/২ চা চামচ, রসুন দুই কোয়া, শুকনা মরিচ ২টি, লবণ পরিমাণমতো,   পেঁয়াজ একটা বড় কুঁচি, সরিষার তেল ১ চা চামচ।

প্রস্তুতপ্রণালি: আলু সিদ্ধ করে নিন। রসুন ও শুকনা মরিচ সরিষার তেলে ভেজে নিন। এবার কালিজিরা হালকা গরম সরিষার তেলে দিয়ে নামিয়ে ফেলুন। বেশি সময় ধরে রাখলে পুড়ে যাবে। এবার সব উপকরণ একসঙ্গে চটকে ভর্তা বানিয়ে নিন। এবার সিদ্ধ করা আলু মাঝখানে কেটে ভেতর থেকে আলু বের করে বাটি বানিয়ে সুন্দর করে সাজিয়ে নিন।

২)লাউপাতা-চিংড়ি ভর্তা

উপকরণ: লাউপাতা ৫টি, চিংড়ি ৮-১০টি, মাজারি সাইজের, ২টি বড় পেঁয়াজ, ১টি বড় রসুন, কাঁচামিরচ ২/৩টি (যার ইচ্ছামতো), লবণ পরিমাণমতো, সরিষার তেল পরিমাণমতো।

প্রস্তুতপ্রণালি: প্রথমে লাউপাতা সরিষার তেলে টেলে হালকা পানি দিয়ে সিদ্ধ করে নিন। এবার লবণ ছাড়া চিংড়িসহ বাকি সব উপকরণ সরিষার তেলে টেলে নিন। এরপর পাটায় বেটে মিহি করে নিন। এখন সাজিয়ে পরিবেশন করুন।  easy recipes bd

৩)বেগুনে-ইলিশ ভর্তা

উপকরণ: বেগুন ২৫-৩০টি, ইলিশ মাছ (৬ টুকরো) মাথা ও লেজসহ, লবণ পরিমাণমতো, সরিষার তেল পরিমাণমতো, কাঁচা মরিচ ৪টি, পেঁয়াজ বড় ৩-৪টি, ১টি বড় রসুন, হলুদ, মরিচ, সামান্য (মাছ ভাজার জন্য), ধনেপাতা পরিমাণমতো।

প্রস্তুতপ্রণালি: প্রথমে ইলিশ মাছ ভালো করে ধুয়ে হলুদ-মরিচ দিয়ে ভেজে নিতে হবে। এরপর বেগুনগুলো আগে সিদ্ধ করে নিতে হবে তারপর সরিষার তেলে ভেজে নিতে হবে। এবার কাঁচা মরিচ, ধনেপাতা, পিঁয়াজ, রসুন, সব কুঁচি করে সরিষার তেলে ভেজে নিতে হবে। এরপর ইলিশ মাছের কাটা বেছে নিয়ে, ভেজে রাখা সব পাটার মধ্যে বেটে নিতে হবে মিহি করে। হয়ে গেল মজার বিউটি বেগুনে-ইলিশ ভর্তা। এবার মাছের ডিজাইন করে সাজিয়ে পরিবেশন করুন।  easy recipes bd

৪)মিষ্টি কুমড়ার ভর্তাঃ

উপকরনঃ মিষ্টি কুমড়া টুকরা ২ ক্যাপ, পেঁয়াজ কুচি ২ টেবিল চামচ, ধনে পাতা কুচি ২ টেবিল চামচ, শুকনা মরিচ টালা প্রয়োজন মতো, সরিষার তেল ২ টেবিল ছামছ, লবন স্বাদ মতো ।

প্রনালিঃ প্রথমে মিষ্টি কুমড়ার টুকরো গুলো পানিতে সিদ্ধ করে নেন । এরপর সিদ্ধ করা মিষ্টি কুমড়ার সাথে সব উপকরন মাখিয়ে নিন। এরপর একটি বাটিতে পরিবেশন করুন।

৫)মুরগির মাংসের ভর্তাঃ

উপকরনঃমুরগির মাংসের সিদ্ধ ১ কাপ,পেয়াজ কুচি ২ টেবিল চামচ, ধনে পাতা কুচি ১ টেবিল চামচ, সরিষার তেল ১ টেবিল চামচ,শুকনা মরিচ গুড়ো পরিমাণ মতো, লবন স্বাদমতো।

প্রণালীঃ প্রথমে সিদ্ধ মাংস থেকে মাংসের হার আলাদা করে ঝুরি করে নিতে হবে। এরপর একটি বাটিতে পেয়াজ কুচি, শুকনা মরিচ গুড়া, ধনেপাতা ও লবণ দিয়ে সরিষার তেল দিয়ে ওইটা মাখাতে হবে ।এরপর সেটায় সিদ্ধ মুরগীর মাংস মাখালেই হয়ে যাবে মুরগীর ভর্তা।

৬)জাম আলুর ভর্তাঃ 

উপকরণ: জাম আলু ২ টি ,শুকনা মরিচ ভাজা ২ টি, পেয়াজ কুচি ১ টা, সরিষার তেল ১ টেবিল চামচ ,লবণ স্বাদমতো ।  easy recipes bd

প্রণালীঃ প্রথমে আলু সিদ্ধ করে খোসা ছাড়িয়ে নিয়ে পেয়াজ ,লবণ, শুকনা মরিচ ভালোমতো মাখিয়ে নিন। এরপর তেল দিয়ে আবার মাখতে হবে। পড়ে আ্লু চটকীয়ে সব গুলো উপকরণ মিশিয়ে ভর্তা বানিয়ে নিন ।

৭) মসুর ডালের ভর্তাঃ

উপকরণঃমসুর ডাল ১ কাপ,পানি ৩ থেকে সাড়ে ৩ কাপ, রসুন কুঁচি আধা চামচ,পেঁয়াজ কুচি ১ চা চামচ,লবণ আধা চা চামচ,কাঁচাম’রিচ ফালি ২টি,তেল ১ চা চামচ।

প্রণালীঃ উপকরণ দিয়ে ডাল সিদ্ধ করতে হবে। ঘন থকথকে হলে নামাতে হবে।

৮) আলু ডিম ভর্তার রেসিপিঃ

উপকরনঃ ডিম ২টি,আলু ১টি (মাঝারি সাইজের), কাঁচাম’রিচ কুঁচি ১ চা চামচ, পেঁয়াজ কুঁচি১টেবিল চামচ,ধনেপাতা কুঁচি ১ চা চামচ,লবণ পরিমাণমতো।  easy recipes bd

প্রণালীঃআলু এবং ডিম সেদ্ধ করে নিন। খোসা ছাড়িয়ে আলু এবং ডিম আলাদাভাবে চট’কে নিন। এবার পেঁয়াজ কুচি, লবণ এবং আধা চা চামচ সরিষার তেল দিয়ে ডিম ও আলু ভালো’ভাবে মেখে ভর্তা তৈরি করুন।

৯) ধনেপাতার চাটনিঃ

উপকরণঃ টাট’কা ধনেপাতা বড় ২ আঁটি, রসুন ২ কোয়া,তেঁতুল ১ টেবিল চামচ,কাঁচাম’রিচ ১টি, চিনি,লবণ স্বাদমতো।

প্রণালীঃধনেপাতার কচি ডগা ও পাতা বেছে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে রাখু’ন। ধনেপাতা, রসুন, কাঁচাম’রিচ, তেঁতুল, লবণ ও চিনি সব একসঙ্গে মিশিয়ে মিহি করে কে’টে নিন। সামান্য ঝাল, মিষ্টি ও ট’কট’ক স্বাদ হবে।

১০)কচু নারকেল ভর্তাঃ

উপকরণঃকচু কিমা ১ কাপ,নারকেল বাটা আধা কাপ,পেঁয়াজ কুচি ১ টেবিল চামচ,শুকনো ম’রিচ ভাজা ৩-৪টি,সরিষার তেল ১ টেবিল চামচ,পুদিনাপাতা কুচি অল্প পরিমাণ,লবণ স্বাদ মতো।  easy recipes bd

প্রণালীঃপ্রথমে এক টুকরো কচুকে পুড়িয়ে বা সেদ্ধ করে ভালো করে মাখিয়ে কিমা তৈরি করুন। একটি ফ্রাইপ্যানে তেল দিয়ে তাতে পেঁয়াজ কুচি, শুকনা ম’রিচ কুচি দিয়ে বাদামি করে ভেজে তাতে কচু কিমা ও নারকেল বাটা দিয়ে নামিয়ে নিন। এবার পুদিনাপাতা কুচি ও লবণ দিয়ে ভালো’ভাবে মাখিয়ে গরম ভাতে পরিবেশন করুন মুখরোচক কচু নারকেল ভর্তা।

আরও মজার দেশি ও বিদেশি খাবারের রেসিপি পেতে আমাদের পেজে লাইক দিয়ে আমাদের পাশে থাকুন।আপনাদের মজার মজার রেসিপি সবার সাথে শেয়ার করতে আর দেড়ি না করে এখনি আমাদের গ্রুপে  এড হয়ে যান এবং আমাদের পেজ ও গ্রুপটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে ভুলবেন না।

Post a Comment

নবীনতর পূর্বতন